হন্ডুরাস (Honduras) : ইতিহাস ও নামকরণ

কীভাবে হলো দেশের নাম ( উত্তর আমেরিকা)

ড. মোহাম্মদ আমীন

হন্ডুরাস (Honduras)

হন্ডুরাস মধ্য আমেরিকার একটি প্রজাতন্ত্র। হন্ডুরাসের পশ্চিমে গুয়েতেমালা, দক্ষিণপশ্চিমে এল সালভাদর, দক্ষিণ-পূর্বে নিকারাগুয়া, দক্ষিণে প্রশান্ত

প্রকাশক: পুথিনিলয়। উত্তর আমেরিক।

মহাসাগর এবং উত্তরে হন্ডুরাস উপসাগর। হন্ডুরাস মায়া সভ্যতাসহ আরও অনেকে সভ্যতার ইতিহাসের সঙ্গে জড়িত। হন্ডুরাসের প্রাচীন নাম ছিল স্পেনিশ হন্ডুরাস। বর্তমান বেলিজ, তৎকালীন ব্রিটিশ হন্ডুরাস হতে পৃথক বুঝানোর জন্য এমন না দেওয়া হয়েছিল। স্পেনিশ পর্যটক ক্রিস্টোফার কলম্বাস ভূখণ্ডটির নাম রাখেন হন্ডুরাস। স্পেনিশ ভাষায় এর অর্থ গভীর বা গভীরতা। মূলত দক্ষিণ উপকুলীয় সাগরের গভীরতা বুঝানোর জন্য কলম্বাস খুব সচেতনভাবে হন্ডুরাস শব্দটি ব্যবহার করেছিলেন। হন্ডুরাস বলতে সে অঞ্চলের দক্ষিণ উপকূলীয় সাগরের গভীরতাকে নির্দেশ করা হতো। ক্রিস্টোফার কলম্বাস এ দ্বীপে নেমে প্রথম যে বাক্যটি উচ্চারণ করেছিলেন সেটি হচ্ছে : ঈশ্বর তোমাকে ধন্যবাদ। তুমি এমন ভয়ঙ্কর গভীরতা থেকে আমাদের মুক্তি দিয়েছ। হন্ডুরাস শব্দের অর্থ ভয়ঙ্কর গভীরতা বা খুব গভীর।

অনেকে মনে করেন, শব্দটির দ্বারা স্পেনিশ লিওনিজ উপভাষায় ট্রুজিলো উপসাগরকে বুঝান হয়েছে। ট্রুজিলা উপসাগরও গভীর। অনেকে মনে করেন, কলম্বাসের উক্তি গ্র্যাচিয়াস এ ডিওস কিউ হেমোস স্যালিডো ডি এসাস (Gracias a Dios que hemos salido de esas Honduras) যার অর্থ ঈশ্বর তোমাকে ধন্যবাদ আমরা এমন গভীরতা হতে মুক্তি পেয়েছি- উক্তির সঙ্গে সম্পৃক্ততা রয়েছে। এখানে আসার পর কলম্বাসের জাহাজ বিপদে পড়ে গিয়েছিল। তবে তা ভাগ্যক্রমে তীরে ভিড়তে সমর্থ হয়। এবং যে ভূখণ্ডের তীরে ভীরে তার দল রক্ষা পেয়েছিল সেটি হচ্ছে বর্তমান হন্ডুরাস। আবার কেউ কেউ বিশ্বাস করেন, হন্ডুরাস শব্দটি কোস্টারিকা শব্দের বিপরীত অর্থ বুঝান হতো। হন্ডুরাসের মোট আয়তন ১,১২,৪৯২ বর্গকিলোমিটার বা ৪৩,২৭৮ বর্গমাইল। ২০১০ খ্রিষ্টাব্দের  হিসাবমতে, মোট জনসংখ্যা ৮২,৪৯,৫৭৪। প্রতি বর্গকিলোমিটারে জনসংখ্যা ৬৪ জন। আয়তন বিবেচনায় এটি পৃথিবীর ১০২-তম বহত্তম দেশ কিন্তু জনসংখ্যা বিবেচনায় ৯৪-তম। আবার জনসংখ্যার ঘনত্ব বিবেচনায় এটি পৃথিবীর ১২৮-তম জনবহুল দেশ। ২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের  হিসাবমতে, হন্ডুরাসের জিডিপি (পিপিপি) ৪০.৯৮৩ বিলিয়ন ইউএস ডলার এবং মাথাপিছু আয় ৪,৯৫৯ ইউএস ডলার। অন্যদিকে,  জিডিপি (নমিনাল) ১৯.৫৬৭ মিলিয়ন ইউএস ডলার এবং মাথাপিছু আয় ২,৩৬৮ ইউএস ডলার। মুদ্রার নাম ল্যামপিরা। রাজধানী তেগুসিগালপা।

হন্ডুরাসের ৫১.৪% নাগরিক রোমান ক্যাথলিক,  ৩৬.২%  প্রোটেস্ট্যান্ট এবং ১.৩% অন্যান্য ধর্মাবলম্বী। অন্যান্য ধর্মাবলম্বীদের মধ্যে মুসলিম, বুড্ডিস্ট ও হিন্দু অন্যতম। ১১.১% নাগরিক কোনো ধর্মে আসক্ত নন। সরকারি ভাষা স্পেনিশ। তবে গ্যারিপুনা, মিসকিটু, বে আইল্যান্ড ক্রেয়োল ও ইংরেজিসহ

প্রকাশক: পুথিনিলয়। দক্ষিণ আমেরিকা।

আরও কিছু স্থানীয় ভাষা প্রচলিত আছে। ১৮২১ খ্রিষ্টাব্দের  ১৫ সেপ্টেম্বর স্পেন হতে স্বাধীনতা লাভ করে। ১৮৩৮ খ্রিষ্টাব্দের  ৫ নভেম্বর ফেডারেল রিপাবলিক অব সেন্ট্রাল আমেরিকা থেকে স্বাধীনতা পায়। হন্ডুরাসের মোট ৮০% এলাকা পর্বতময়। হন্ডুরাসের ৫০.৭% লোক দরিদ্র সীমার নিচে বাস করে। কলা, কফি ও কাঠ প্রধান রপ্তানি দ্রব্য। আমেরিকান লেখক ও হেনরি হন্ডুরাসকে প্রথম কলাপ্রজাতন্ত্র (Banana Republic) নামে অবহিত করেন। কারণ হন্ডুরাসে অবস্থিত আমেরিকান কলা কোম্পানির ওই দেশের ওপর ব্যাপক প্রভাব ছিল। হন্ডুরাস পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম প্রবাল দ্বীপ। রাজধানী কোমাইয়াগুয়েলা (Comayagüela)) ও তেগুসিগালপা (Tegucigalpa) নামক দুটি শহর নিয়ে গঠিত।

হন্ডুরাসে রয়েছে পৃথিবীর অত্যন্ত সুন্দর কয়েকটি সমুদ্র সৈকত। এখানে  মে হতে জুলাই মাসে  ইয়োরো এলাকায় মৎস্য বৃষ্টি হয়। কালো মেঘে আকাশ ঢেকে যায়, প্রচণ্ড বিদ্যুৎ ও মেঘগর্জনের প্রবল বৃষ্টিপাত শুরু হয়। বৃষ্টিপাত শুরু হলে মাঠে-ঘাটে সর্বত্র অসংখ্য মাছ পড়ে থাকে। লোকজন তা ধরে নিয়ে রান্না করে খায়। এটি তাদের কাছে একটা মজার উৎসব। হন্ডুরাসের পতাকার চারটি তারকা মধ্য আমেরিকার চারটি দেশের প্রতীক। মধ্যের তারকাটা হন্ডুরাস। কারণ হন্ডুরাস মধ্য আমেরিকার মাঝখানে অবস্থিত। হন্ডুরাসের মুদ্রার নাম লেমপিরা। স্পেনের সঙ্গে যুদ্ধে শহিদ স্থানীয় এক বীরের সম্মানে এমন নাম রাখা হয়।

অতি গরীব দেশ। অধিকাংশ শিশুকে পরিবারের আয়ের জন্য স্কুলে যেতে পারে না। শিশুদের অনেকে শহরের বাইরে এবং ইক্ষু ক্ষেতে কাজ করে। কৃষি ও ফসল তোলা মৌসুমের ভিত্তিতে হন্ডুরাসের শিক্ষা-বর্ষ ফেব্রুয়ারি হতে নভেম্বর পর্যন্ত বিস্তৃত। মধ্য আমেরিকার কিংবদন্তি অনুসারে, ম্যাকাও প্যারট Macaw Parrot) একটি অশুভ পাখি। এটি বৃষ্টি আনে এবং আত্মার প্রতীক। তোতাটি জীবন ও আত্মার মধ্যে সংযোগ ঘটায়।  লাল ম্যাকাউ হন্ডুরাসের একটি জাতীয় প্রতীক।


উত্তর আমেরিকা (North America) : ইতিহাস ও নামকরণ

এন্টিগুয়া এন্ড বারবুডা (Antigua and Barbuda) : ইতিহাস ও নামকরণ

 দি বাহামাস (Bahamas) : ইতিহাস ও নামকরণ

বার্বাডোস (Barbados ) : ইতিহাস ও নামকরণ

বেলিজ (Belize) : ইতিহাস ও নামকরণ

কানাডা (Canada) : ইতিহাস ও নামকরণ

কোস্টারিকা (Costa Rica) : ইতিহাস ও নামকরণ

কিউবা ( Cuba) : ইতিহাস ও নামকরণ

ডোমিনকা (Dominica) : ইতিহাস ও নামকরণ

 ডোমিনিকান রিপাবলিক (Dominican Republic) : ইতিহাস ও নামকরণ

এল স্যালভেডর (El Salvador) : ইতিহাস ও নামকরণ

গ্রেনাডা (Grenada) : ইতিহাস ও নামকরণ

গুয়েতেমালা (Guatemala) : ইতিহাস ও নামকরণ

ইউনাইটেড স্টেটস (United States) : ইতিহাস ও নামকরণ

হাইতি (Haiti) : ইতিহাস ও নামকরণ

সূত্র:  কীভাবে হলো দেশের নাম, ড. মোহাম্মদ আমীন, পুথিনিলয়, বাংলাবাজার, ঢাকা।

All Link

সাধারণ জ্ঞান সমগ্র

Knowledge Link

বাংলাদেশ ও বাংলাদেশবিষয়ক সকল গুরুত্বপূর্ণ সাধারণজ্ঞান লিংক

আফ্রিকা মহাদেশ : ইতিহাস ও নামকরণ লিংক

ইউরোপ মহাদেশ : ইতিহাস ও নামকরণ লিংক

এশিয়া মহাদেশ : ইতিহাস ও নামকরণ লিংক

error: Content is protected !!