প্রয়োগ ও ব্যবহার

ড. মোহাম্মদ আমীন
বাক্যে বিশেষ্য হিসেবে ব্যবহৃত সংস্কৃত ‘প্রয়োগ’ শব্দের অর্থ প্রযুক্তির ব্যবহার, ব্যবহারের ধরণ, নিয়োগ, দৃষ্টান্ত, ব্যবহার, উল্লেখ প্রভৃতি। ‘প্রয়োগ’ শব্দের ছয়টি অর্থ দেওয়া হলেও সাধারণত ‘প্রয়োগ’ শব্দটি প্রযুক্তির ব্যবহার, ব্যবহারের ধরণ, দৃষ্টান্ত, উল্লেখ এবং কার্যকারতা প্রভৃতি অর্থে অধিক ব্যবহৃত হয়। আমি মনে করি, ‘প্রয়োগ’ শব্দটি প্রযুক্তি, ব্যবহারের ধরণ, বাক্যবিশেষে ব্যবহার প্রভৃতি অর্থে স্থাপন করা অধিক সমীচীন। অর্থ প্রকাশে বিঘ্ন ঘটার শঙ্কা থাকার কারণ ঘটে বলে ইংরেজি use অর্থ প্রকাশে  ‘প্রয়োগ’ শব্দটি যত কম ব্যবহার করা যায় তত ভালো। তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে ‘প্রয়োগ’ এবং ‘ব্যবহার’ অভিন্নার্থে ব্যবহার করলেও বাক্যের গুণগত মান বা অর্থের তারতম্য হবে না। যেমন : “বল শব্দের তিনটি ভিন্নার্থক প্রয়োগ দেখান।” এই বাক্যে আপনি ‘প্রয়োগ’ শব্দের স্থলে ‘ব্যবহার’ লিখতে পারেন।এবার শব্দটির পদার্থ দেখা যাক :
১. বানরের উপর এই ওষুধটি প্রয়োগ করে দেখতে পারেন।
২. তোমার ব্যবহার ভালো ছিল, কিন্তু প্রয়োগটা শোভনীয় ছিল না।
৩. প্রয়োগটি (দৃষ্টান্ত) যথার্থ ছিল।
 
বিশেষ্য হিসেবে ব্যবহৃত সংস্কৃত ‘ব্যবহার’ শব্দের অর্থ – আচরণ (মার্জিত ব্যবহার), স্বভাব, মামলা-মোকাদ্দমা, আইন(ব্যবহারজীবী), কাজে প্রয়োগ (ব্যবহার করা), বিষয়কর্ম, বাণিজ্য। ‘ব্যবহার’ ‘শব্দের’ এতগুলো অর্থ থাকলেও বাক্যে এসব অর্থ পেতে হলে আপনাকে বাক্য বুঝে তা বসাতে হবে। ‘ব্যবহার’ শব্দটি সাধারণত আচরণ, আইনজীবী, কাজে প্রয়োগ, সাধারণ স্বভাব প্রভৃতি অর্থ প্রকাশে অধিক ব্যবহৃত হয়। যেমন :
৪. তার ব্যবহার (আচরণ) ভালো ছিল না।
৫. ব্যবহারজীবী (আইনজীবী) হিসেবে তিনি ব্যবহারে (মামলা-মোকাদ্দমা) বেশ দক্ষ।
৬. যন্ত্রটির ব্যবহার (প্রয়োগ) তুমি জানো কি?
৭. এটিই তার জন্মগত ব্যবহার (স্বাভাবিক আচরণ)।
‘প্রয়োগ’ শব্দের একটি অর্থ ‘ব্যবহার’ হিসেবে উল্লেখ থাকায় অনেকে বলেন, ‘প্রয়োগ’ ও ‘ব্যবহার’ শব্দকে সমার্থক মনে করা যায়। কিন্তু এই সমার্থকতা সব বাক্যে সর্বস্থানে বসানোর চেষ্টা করলে বাক্যের অর্থে ভীষণ অনর্থ ঘটতে পারে। যেমন : “তুমি আমার গাড়িটা কিছুদিন ব্যবহার করতে পারো।” বাক্যটি যদি আপনি এভাবে লিখেন, “ তুমি আমার গাড়িটা কিছুদিন প্রয়োগ করতে পারো”, তাহলে বিষয়টা হাস্যকর হয়ে যাবে। যেখানে ‘ব্যবহার’ শব্দটি কারো আচরণকে প্রকাশের জন্য প্রয়োগ করা উচিত , সেখানে ‘প্রয়োগ’ শব্দ দিয়ে তা করতে গেলে আপনি অজ্ঞতার পরিচয় দেবেন। যেমন :
“বয়স্ক লোকটার সঙ্গে তোমার এমন ব্যবহার করা উচিত হয়নি।” বাক্যটি যদি আপনি লিখেন “বয়স্ক লোকটার সঙ্গে তোমার এমন প্রয়োগ করা উচিত হয়নি”। কেমন হবে?
‘ব্যবহার’ শব্দের আর একটি প্রয়োগ আইনজীবী নির্দেশে। আইনজীবীর অপর নাম ব্যবহারজীবী, ‘ব্যবহার’ এবং ‘প্রয়োগ’ সমার্থক ধরে নিয়ে যদি লিখেন, আমার বাবা একজন প্রয়োগজীবী, তাহলে অনর্থ অনিবার্য।
অতএব, ‘প্রয়োগ’ এবং ‘ব্যবহার’ শব্দের প্রয়োগ ও ব্যবহারে সতর্কতা বাঞ্ছনীয়। আচরণ, স্বভাব, আইনজীবী, প্রকাশে ব্যবহার শব্দটি নিশ্চিত ব্যবহার করতে পারেন, কিন্তু কার্যকারত, প্রযুক্তি কিংবা ব্যবহারের ধরণ প্রভৃতি। প্রকাশে ‘প্রয়োগ’ শব্দের ব্যবহার অধিকতর নিরাপদ।
যে যাই বলুন,  ‘প্রয়োগ’ ও ‘ব্যবহার’ বড়ো হতভাগা।  আমরা প্রত্যহ কতভাবে শব্দদুটো ব্যবহার করছি,  কত কৌশল-অকৌশলে প্রয়োগ করে যাচ্ছি; তবু বেচারদ্বয়র উপস্থিতি কবিতায় আর গানে নেই বললেই চলে। কাজের লোকের মতো কাজের শব্দও ভালো আসনে বসতে পারে না, সবাই অপাঙ্‌ক্তেয় রেখে দেয়।
“রাগ করো না ‘প্রয়োগ’ তুমি, রাগ করো না ‘ব্যবহার’
অপাঙ্‌ক্তেয় নও তোমরা পঙ্‌ক্তি-ভরা বাহার।” 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Language
error: Content is protected !!