জয় বিজয়

ড. মোহাম্মদ আমীন
পুরাণে ‘জয়’ ও ‘বিজয়’ নামের দু-ভাই বৈকুণ্ঠের দ্বাররক্ষক ছিলেন। তখন তাঁদের স্বভাব-চরিত্র ও আচার-আচরণ ছিল প্রায় অভিন্ন। তবে জয়, বিজয়-এর চেয়ে কিছুটা হালকা এবং চিকন ছিল। এ দু-ভাই দুর্বাসা মুনির অভিশাপে বিষ্ণুবিরোধীরূপে পৃথক তিন যুগে তিন বার পৃথিবীতে জন্ম নিয়েছিলেন। তাঁরা সত্যযুগে হিরণ্যাক্ষ ও হিরণ্যকশিপু, ত্রেতাযুগে রাবণ ও কুম্ভকর্ণ এবং দ্বাপর যুগে দন্তবক্র ও শিশুপাল নামে জন্মগ্রহণ করেন। কথিত হয়, জয়-বিজয় নামের এ দুই ভাই হতে ‘জয়’ ও ‘বিজয়’ শব্দের উদ্ভব।
‘জয়’ ও ‘বিজয়’ সমার্থক শব্দ, তবে অভিন্ন শব্দ নয়। তাই সমার্থক হলেও দুই ভাইয়ের মতো ভিন্ন সত্তা হিসেবে উভয়ের আচরণগত বোধ এবং ব্যাবহারিক ও প্রায়োগিক পার্থক্য বিদ্যমান। সুক্ষ্মভাবে লক্ষ করলে এ পার্থক্য অনেক ক্ষেত্রে বেশ ভালোভাবে চোখে পড়ে।
এবার চলে আসা যাক অভিধান : ‘জয়’ এর ইংরেজি প্রতিশব্দ Win এবং ‘বিজয়’ এর ইংরেজি প্রতিশব্দ Victory।
জয় [jaẏa]বি
১. পরাভুত বা দমন করা (শত্রু জয়, যুদ্ধ জয়);
২. যুদ্ধ ইত্যাদির দ্বারা অধিকার করা (দেশ জয়); ৩. কার্যসিদ্ধি, সাফল্য (জীবনে জয়লাভ করা জয় . জয় করা v. to win; to de feat; to conquer; to succeed.জয় হওয়া v. to be won or conquered; to be crowned with victory or success. world-conquerer. বিজয়[bijaẏa] n victory, triumph; conquest (ভারতবিজয়); subdual or vanquishment (দানববিজয়); success (কর্মে বিজয়লাভ); (obs.) act of going. অনেকের মতে, বিজয় বলতে কোন প্রতিযোগিতা অথবা যুদ্ধ জয় লাভ করাকে বুঝায়।কিন্তু জয় বলতে কোনো কিছু প্রাপ্ত হওয়া, লাভ করা, উপার্জন করা প্রভৃতি বুঝায়।তবে, উভয় শব্দের পার্থক্যে এটি একমাত্র নির্ধারক নয়।  এবার জয় ও বিজয়-এর পার্থক্য নির্ধারণ করা যাক :
‘জয়’ যখন বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে তখন সেটা ‘বিজয়’। গুরুত্বপূর্ণ ‘জয়’ প্রকাশে সাধারণত ‘বিজয়’ শব্দটি অধিক কার্যকর। যেমন : ‘জয় দিবস’ নয়; ‘বিজয় দিবস’। ‘বিজয় মা কালী’ নয় ‘জয় মা কালী’ বলা হয়। তাছাড়া বাক্য গঠনেও জয়-বিজয় সুক্ষ্ম পার্থক্য ধারণ করে। শব্দ ভাষার সমৃদ্ধির পরিচায়ক। সুতরাং সমার্থক শব্দ যত বেশি হয় ভাষা তত সমৃদ্ধ হয়। আবার কাব্যিক সৌন্দর্য বা ছান্দিক রূপায়ণের ক্ষেত্রে জয় ও বিজয় এর ব্যবহারের ভিন্নতা দেখা যায়। যেমন : ‘বিজয় বাংলা’ বলার চেয়ে ‘ জয় বাংলা’ অনেক শ্রুতিমধুর।
ছোটো ক্ষেত্রের চেয়ে তুলনামূলকভাবে বড়ো ক্ষেত্রে বিজয় ব্যবহার করা হয়। যেমন : রহিমের জয়ে আমরা আপ্লুত। কিন্তু; রহিমের দলের বিজয়ে আমরা আপ্লুত। জয় বা বিজয় শব্দের সঙ্গে যে শব্দ যুক্ত হবে, সে শব্দ কয়টি অক্ষর দিয়ে গঠিত তার উপর নির্ভর করে জয় যুক্ত হবে না বিজয় যুক্ত হবে। যেমন : ‘সমুদ্র বিজয়’ বলার চেয়ে ‘সমুদ্র জয়’ বলা অধিক নান্দনিক। “জয় বাংলা বাংলার জয়”, এ লাইনে বিজয় বসালে  ছন্দ রক্ষিত হলেও শ্রুতিমধুরতার বিঘ্ন ঘটে। ‘জয়’ যখন বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ এবং ব্যাপক হয়ে হয়ে ওঠে তখন সাধারণভাবে সেটা ‘বিজয়’। তবে, এ ধারণাটি “মেনেই চলতে হবে” -এমনটি নয়। গুরুত্বপূর্ণ ‘জয়’ প্রকাশে সাধারণত ‘বিজয়’ শব্দটি অধিক কার্যকর। যেমন : ‘জয় দিবস’ নয়; ‘বিজয় দিবস’; “ আমর জয়”, কিন্তু “ আমাদের বিজয়”। অন্যদিকে “ আমি জয়ী হয়েছি” বাক্যটি যত  সুন্দর ও কার্যকর মনে হয় “ আমি বিজয়ী হয়েছি” বাক্যটা  তত সুন্দর ও কার্যকর মনে হয় না। কাবিক্যতায় বলা যায় :
“জয়-বিজয় দুই ভাই বৈকুণ্ঠের দ্বারে
দুইয়ে যেন একাত্মা পর বলি কারে।”

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Language
error: Content is protected !!