প্রাক্তন আর প্রাক্তনী

ড. মোহাম্মদ আমীন
 প্রাক্তন সংস্কৃত শব্দ। শব্দটি যখন বিশেষণ হিসেবে ব্যবহৃত হয় তখন এর অর্থ ভূতপূর্ব, জন্মান্তরবিষয়ক এবং বিশেষ্য হিসেবে ব্যবহৃত হলে অর্থ হয় — পূর্বজন্মে কৃতকর্মের ফল, ভূতপূর্ব কর্মী প্রভৃতি।
আমাদের আলোচনা ভূতপূর্ব নিয়ে। অভিধানমতে, ভূতপূর্ব শব্দের অর্থ আগেকার, পূর্বে ছিল কিন্তু এখন নেই এমন। সুতরাং, বিশেষণ হিসেবে ব্যবহৃত ‘প্রাক্তন’ শব্দের অর্থ ভূতপূর্ব বা প্রাক্তন শিক্ষার্থী নয়, এর অর্থ আগে ছিল, কিন্তু এখন নেই এমন। যে কেউ প্রাক্তন হতে পারে এবং কে প্রাক্তন তা ‘প্রাক্তন’ শব্দের সঙ্গে উল্লেখ করতে হয়। যেমন : প্রাক্তন মন্ত্রী জামিল সাহেব আর নেই। করিম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র। মাজেদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন কর্মচারী। তুলশী রানি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ঝাড়ুদার।
বাংলা একাডেমি আধুনিক বাংলা অভিধানে, ‘প্রাক্তনী’ শব্দের পৃথক কোনো ভুক্তি নেই। বিশেষ্য হিসেবে ব্যবহৃত ‘প্রাক্তন’ শব্দের স্ত্রীলিঙ্গ হিসেবে ‘প্রাক্তন’ ভুক্তিতে ‘প্রাক্তনী’ শব্দটি পাওয়া যায়। অন্যদিকে, বাক্যে বিশেষ্য হিসেবে ব্যবহৃত এবং ‘ভূতপূর্ব কর্মী’ অভিধার্থে দ্যোতিত ‘প্রাক্তন’ শব্দের স্ত্রীলিঙ্গ হিসেবে ‘প্রাক্তনী’ বর্ণিত হয়েছে। সুতরাং ‘প্রাক্তনী’ শব্দের অর্থ ‘ভূতপূর্ব মহিলা কর্মী’। ছাত্রের স্ত্রীবাচক যেমন ছাত্রী, বার্ষিক এর স্ত্রীবাচক যেমন ‘বার্ষিকী’, পুরুষ এর স্ত্রীবাচক যেমন নারী তেমনি ‘প্রাক্তন’ এর স্ত্রীবাচক শব্দ ‘প্রাক্তনী’
অনেকে মনে করেন ‘প্রাক্তনী’ শব্দের অর্থ পূর্বতন বা ভূতপূর্ব শিক্ষার্থী। তা আদৌ ঠিক নয়। অভিধানমতে, প্রাক্তনী শব্দের অর্থ ‘ভূতপূর্ব মহিলা কর্মী’। একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী পরিষদের অনুষ্ঠানে ছাত্র ও ছাত্রী উভয় লিঙ্গের লোকজন উপস্থিত থাকলেও মাইকে কেবল বারবার বলা হচ্ছিল ‘প্রিয় প্রাক্তনী’, মানে ‘প্রিয় ভূতপূর্ব মহিলা কর্মী’।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Language
error: Content is protected !!